December 8, 2019

বিশ্বের সবচেয়ে দামি হাতঘড়ির: এর দাম ২৬৪ কোটি টাকা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় রীতিমতো এক ইতিহাস তৈরি হয়েছে। বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ২৬৪ কোটি টাকায়। শনিবার এক নিলামে বিক্রি হয় ওই ঘড়িটি। সেটি বিক্রি করে সুইজারল্যান্ডের প্যাটেক ফিলিপ। বিলাসী ঘড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে তাদের বেশ পরিচিতি রয়েছে।

একটি দাতব্য কাজের জন্য জেনেভায় নিলামে ওঠে ‘প্যাটেক ফিলিপ গ্র্যান্ডমাস্টার চাইম রেফারেন্স ৬৩০০এ-০১০’ ঘড়িটির। আর সেটি বিক্রি হয়েছে তিন কোটি ১০ লাখ সুইস ফ্রাঁতে, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ২৬৪ কোটি ৭০ লাখ ৯২ হাজার ১২৫ টাকা।

ডাচেন মাসকুলার ডেস্ট্রফি নামে একটি জিনঘটিত রোগের চিকিত্সার গবেষণার জন্য অর্থ সংগ্রহ করছে প্যাটেক ফিলিপ। সেই কারণেই এই ঘড়ি নিলামের আয়োজন করা হয়।

সংস্থার প্রেসিডেন্ট থিয়েরি স্টের্ন বলেন, তারা আশা করেছিলেন ১১০ কোটির মতো টাকা উঠে আসবে। কিন্তু তারা স্বপ্নেও ভাবেননি এত টাকা উঠবে নিলামে।

এদিকে বিশ্বের বাজারে এখনও পর্যন্ত বিক্রি হওয়া হাতঘড়ির মধ্যে এটাই সবচেয়ে দামি। তবে কে এই ঘড়ি কিনেছেন, তা প্রকাশ করা হয়নি।

অনন্য বৈশিষ্ট্যের অধিকারী এই হাতঘড়িতে রয়েছে ১৩৬৬টি ছোট বড় পার্টস ও ২১৪ কেস কম্পোনেন্ট। রয়েছে দুটি ডায়াল। একটি রোস গোল্ড ও অপরটি কালো। রয়েছে অ্যাকস্টিক অ্যালার্ম ও ডেট রিপিটার। এছাড়া ধুলো ও আর্দ্রতা প্রতিরোধের ক্ষমতা রয়েছে এই ঘড়ির।

শুধু এর জটিল ডিজাইনই নয় স্টেনলেস স্টিলের এই ঘড়িটিতে রয়েছে ১৮ ক্যারেটের ‘রোজ গোল্ড’ কেস। ঘড়িতে ঘণ্টা, মিনিট ও সেকেন্ডের পাশাপাশি পাওয়া যাবে দিন, মাস, বছরও। শুধু তাই নয় এই ঘড়ি লিপিয়ার হিসেব করে চলে।

উল্লেখ্য, ১৮৩৯ সাল থেকে ঘড়ি তৈরি করছে প্যাটেক ফিলিপ। তবে যে ঘড়িটি নিলামে বিক্রি হয়েছে সেটি কোম্পানির সবচেয়ে জটিল নক্সার ঘড়ি।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *