January 29, 2020

খালেদা জিয়ার জামিন পাওয়ার সুযোগ রয়েছে: ড. কামাল

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উচ্চ আদালত থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন পাওয়ার সুযোগ আছে বলে মনে করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। মঙ্গলবার বিকালে মতিঝিলে নিজ চেম্বারে ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগে খালেদা জিয়ার যে মামলার শুনানি চলছে, সে মামলায় তার জামিন পাওয়ার সুযোগ আছে কিনা এমন প্রসঙ্গে ড. কামাল হোসেন বলেন,  সুযোগ অবশ্যই আছে, সুযোগ অবশ্যই আছে। এর থেকে পরিস্কার করে আর কি বলবো? অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মানবিক কারণে খালেদা জিয়া জামিন পাওয়ার যোগ্য। এর আগে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বেগম খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারিরীক অবস্থা নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। তিনি বলেন, সভা মনে করে বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে দীর্ঘ ৬৬৪ দিন বন্দী করে রাখা হয়েছে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে।

তিনি আরও বলেন, যে মামলায় তাকে সাজা দেয়া হয়েছে তা অন্যায়। তার সর্বশেষ শারিরীক অবস্থার বিবেচনায় আমরা তার আশু মুক্তি দাবি করছি।এ দাবি মানবিক এবং তিনি জামিন পাওয়ার অধিকার রাখেন। অন্যথায় তার দায় দায়িত্ব সম্পূর্ণভাবে সরকারের উপর বর্তাবে।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সাক্ষাতের প্রসঙ্গে জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব বলেন, আমরা ২২ তারিখ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছিলাম। উনি আন্তরিকতার সঙ্গে বলেছিলেন আইজি প্রিজনকে বলে দিয়েছেন। আমরা নামের তালিকা পাঠিয়েছি। কিন্তু খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ দেয়া হচ্ছে না।

ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে অংশ নেন, জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব, গণফোরামের কার্যকরি সভাপতি অধ্যাপক আবু সায়ীদ, এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিকল্প ধারা একাংশের সভাপতি অধ্যাপক নুরুল আমিন বেপারী প্রমুখ।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *